ঢাকা, রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

হাশরের ময়দানে যেমন হবে হিসাব-নিকাশ  

প্রকাশনার সময়: ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:৩২

পুনরুত্থানের পর মানুষের কাছ থেকে হিসাব-নিকাশ নেয়া হবে। কেউ এমনি এমনি জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না। সবার লিপিবদ্ধ করা হিসেবের খাতা খুলে দিয়ে বলা হবে! ‘পাঠ কর তোমার কিতাব, আজ তোমার হিসাব নেয়ার ব্যাপারে তুমিই যথেষ্ট।’ (সুরা বনি ইসরাইল: ১৪)

সেদিন কেউ নিজের হিসাব আত্মগোপনের কোনো সুযোগ পাবে না। দুনিয়াতে মানুষ অপরাধ করার পর আত্মগোপন করে থাকে, কিন্তু পরকালে মানুষ আত্মগোপন করে থাকার সুযোগ পাবে না। আল্লাহ বলেন, ‘সেদিন বলা হবে, হে অপরাধীরা, তোমরা আজ পৃথক হয়ে যাও।’ (সুরা ইয়াসিন: ৫৯)

সেদিন সাক্ষ্য দেবে সকল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ। মহা হিসাবের দিন মানুষের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবে। আল্লাহ বলেন, ‘আমি আজ তাদের মুখ মোহর করে দেব, তাদের হাত কথা বলবে আমার সঙ্গে এবং তাদের চরণ সাক্ষ্য দেবে তাদের কৃতকর্মের।’ (সুরা ইয়াসিন: ৬৫) সেদিন কেউ হিসাব এড়ানোরও সুযোগ পাবে না। কিয়ামতের দিন কোনো ব্যক্তি তার কৃতকর্মের হিসাব এড়িয়ে যেতে পারবে না। ভালো ও মন্দ কাজ যত ক্ষুদ্রই হোক না কেন, পরকালে তার হিসাব দিতে হবে।

আল্লাহ বলেন, ‘কেয়ামতের দিন আমি স্থাপন করব ন্যায় বিচারের মানদণ্ড। সুতরাং কারো প্রতি কোনো অবিচার করা হবে না এবং কাজ যদি তিল পরিমাণ ওজনেরও হয়, তবু তা আমি উপস্থিত করব। হিসাব গ্রহণকারী হিসেবে আমিই যথেষ্ট।’ (সুরা আম্বিয়া: ৪৭)

আমলনামা উপস্থিত করা হবে। আখেরাতে হিসাবের সময় মানুষের আগে-পরের সব আমলনামা উপস্থিত করা হবে। এরশাদ হচ্ছে, ‘সেদিন মানুষকে অবহিত করা হবে সে কী আগে পাঠিয়েছে এবং কী পেছনে রেখে গেছে।’ (সুরা কিয়ামাহ: ১৩)

হিসাব নয়, অনুগ্রহে মুক্তি পাবে। পরকালে কেউ নিজের আমলের হিসাব দিয়ে মুক্তি পাবে না। মানুষের মুক্তি মিলবে আল্লাহর দয়া ও অনুগ্রহে। রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘কেয়ামতের দিন যার হিসাব নেয়া হবে সে ধ্বংস হয়ে যাবে।’ (বুখারি: ৬৫৩৭)

মুমিনের হিসাব-নিকাশ সহজ করা হবে -তবে আল্লাহ তাঁর মুমিন বান্দাদের হিসাব সহজ করবেন। পবিত্র কোরআনে এরশাদ হয়েছে, যাকে তার আমলনামা তার ডান হাতে দেয়া হবে, তার হিসাব-নিকাশ সহজেই নেয়া হবে। (সুরা ইনশিকাক- আয়াত: ৭-৮)

অবিশ্বাসীদের হিসাব কঠিন হবে- বিপরীতে যারা অবিশ্বাসী ও অবাধ্য হবে, তাদের হিসাব হবে অত্যন্ত কঠিন। পবিত্র কোরআনে এরশাদ হয়েছে, ‘এবং যাকে তার আমলনামা তার পৃষ্ঠের পেছন দিক থেকে দেয়া হবে, সে অবশ্যই তার ধ্বংস কামনা করবে এবং জ্বলন্ত আগুনে প্রবেশ করবে।’ (সুরা ইনশিকাক: ১০-১২)

হিসাব থেকে কেউ কেউ মুক্তি পাবে, তবে সবাই নয়। আল্লাহ তাঁর কতিপয় বান্দার প্রতি বিশেষ অনুগ্রহ করবেন। ফলে তিনি তাদের হিসাব থেকে মুক্তি দেবেন। তিনি তাদের বলবেন, ‘নিশ্চয়ই আমি দুনিয়ায় তোমার অপরাধ আড়াল করেছিলাম, আজ আমি তোমার সে অপরাধ ক্ষমা করে দিলাম।’ (বুখারি: ৬০৭০)

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ