ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ত্বক দাগমুক্ত রাখতে হলে...

প্রকাশনার সময়: ০৬ জুন ২০২২, ০৬:৫০

ত্বক দাগমুক্ত ও সুন্দর রাখতে সবাই চায়। তবে ত্বকের দাগ দূর করতে প্রয়োজন নিয়মিত যতœ নেয়া। আমাদের বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে ত্বকে নানা ধরনের দাগ-ছোপও। শুধু যে মুখ তাই নয়, শরীরের অন্যান্য অংশ যেমন গলা, পেট, হাত, পায়েও হতে পারে দাগ।

কিছুটা সতর্ক ও যত্মশীল হলেই দাগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

প্রাকৃতিক উপাদানের ওপর বিশ্বাস রাখুন

সবার ত্বক একরকম নয়, একেকজনের ত্বক একেকরকম। যার যার ত্বকের সঙ্গে মানানসই এমন সব রূপচর্চা করতে পারেন। বাহির থেকে ক্রয় করা কেমিক্যালযুক্ত প্রসাধনী ব্যবহারের ক্ষেত্রেও সাবধান হতে হবে। কারণ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তা উপকারের চেয়ে বেশি ক্ষতি করে। যদিও অনেক সময় সাময়িক মুক্তি মিললেও পরবর্তীতে দেখা দেয় গুরুতর সমস্যা।

এজন্যই ত্বকের দাগ-ছোপ দূর করার ক্ষেত্রে সতর্ক হোন। বিশ্বাস রাখুন প্রাকৃতিক ও ঘরোয়া উপাদানে। যদি তারপরও সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে একজন চর্ম বিশেষজ্ঞের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

ত্বক আর্দ্র রাখা

ত্বকের দাগ-ছোপ এড়াতে ত্বককে ভেতর থেকে আর্দ্র রাখতে হবে। আবার অনেকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করেন না ব্রণ থাকার কারণে। আবার তৈলাক্ত ত্বক স্ক্রাব করা হলে তার ক্ষয় পূরণ করার জন্য ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত। ত্বকের তৈলাক্তভাব কমাতে চাইলে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত।

ত্বককে ব্রণমুক্ত রাখার জন্য

দূষণ, ধুলাবালি ব্রণ হওয়ার জন্য বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দায়ী। দূষণ ও ধুলাবালি লোমকূপ বন্ধ করে দেয়। যার কারণে দেখা দেয় ব্রণ। আবার অনেক সময় লোমকূপ বন্ধ করার জন্য সানস্ক্রিনও দায়ী থাকে। এজন্য সানস্ক্রিন নির্বাচনের সময় তেল মুক্ত বা ত্বকের লোমকুপে আবদ্ধ হবে না এমন সানস্ক্রিন ক্রয় করতে হবে।

যদি মুখে মেকআপ করেন তাহলে তা পুরোপুরি তুলেই ঘুমাতে যান।

গুঁড়া দুধের স্ক্রাব ত্বক দাগমুক্ত করবে

গুঁড়া দুধের স্ক্রাব ত্বকের দাগ দূর করার জন্য ব্যবহার করুন। এটি তৈরি করার জন্য দূরে যেতে হবে না। ঘরে বসেই খুব সহজে তৈরি করতে পারবেন। যেমন পাঁচ-ছয়টি কাঠ বাদাম গুঁড়া করে নিন। তারপর তিন চা চামচ লেবুর রস ও দুই চা চামচ গুঁড়া দুধ একত্রে ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। এরপর এর সঙ্গে গুঁড়া করে রাখা কাঠ বাদামও মেশান। এ তিন উপাদানই ত্বকের দাগ দূর করার জন্য কার্যকরী।

মিশ্রণ তৈরি করার পর ত্বকের যেসব স্থানে দাগ আছে সেসব স্থানে ভালোভাবে মেখে নিন। এভাবে আধাঘণ্টা রেখে দিন। তারপর ভালোভাবে মুখ ধুয়ে নিন। এভাবে নিয়মিত এক সপ্তাহ ব্যবহার করলে দাগ অনেকটাই কমে আসতে শুরু করবে। তবে পুরো দাগমুক্ত ত্বক পেতে নিয়মিত ব্যবহার করুন গুঁড়া দুধের স্ক্রাব।

তিন উপাদানে বাড়বে ত্বকের আর্দ্রতা

ত্বকচর্চায় ময়েশ্চারাইজার অতি প্রয়োজনীয় এক উপাদান। নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার করে ময়েশ্চারাইজার না লাগালে অকালেই ত্বকে পড়তে পারে বলিরেখা। অনেকেই কেনা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করে থাকেন। তবে প্রাকৃতিক উপায়েও ত্বকের আর্দ্রতা বাড়ানো সম্ভব। তাহলে জেনে নেয়া যাক, কীভাবে সহজেই প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বকের আর্দ্রতা বাড়ানো যায়।

দুধ

তিন উপাদানে বাড়বে ত্বকের আর্দ্রতা

একটি পরিষ্কার কাপড় দুধে ভিজিয়ে নিয়ে সেটি পুরো মুখে খুব ভালোভাবে মেখে নিন এরপর সেটি মুখেই শুকিয়ে নিন। নিয়মিত দুধ মুখে মাখলে কিন্তু পাবেন আর্দ্র ত্বক।

মধু

তিন উপাদানে বাড়বে ত্বকের আর্দ্রতা

মুখে মধু মাখলে বাড়ে আর্দ্রতা। মধু ত্বকের ব্যাক্টেরিয়াও মেরে ফেলে সেইসঙ্গে লোমকূপে থাকা ময়লাও পরিষ্কার করে দেয়।

তেল

তিন উপাদানে বাড়বে ত্বকের আর্দ্রতা

মুখের আর্দ্রতা বাড়াতে নিয়মিত মাখুন তেল সে অলিভ অয়েলই হোক বা নারকেল তেল। রোজ ঘুমাতে যাবার আগে মুখে মেখে নিন তেল এতে করে ত্বকের আর্দ্রতা বাড়বে।

নয়াশতাব্দী/জেডআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ