ঢাকা, সোমবার, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯, ৭ রজব ১৪৪৪

সরাসরি যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে আমেরিকা ও রাশিয়া : গবেষণা নিবন্ধ

প্রকাশনার সময়: ২৪ জানুয়ারি ২০২৩, ২১:২৬

মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো সামরিক জোট ও আমেরিকা দিন দিন ইউক্রেন ইস্যুতে বিপর্যয়কর দৃশ্যপটের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। ওয়াশিংটন ও মস্কোর মধ্যে সরাসরি যুদ্ধের ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে বলে ওয়াশিংটনের একজন গবেষক তার গবেষণা নিবন্ধে এই মন্তব্য করেছেন।

ইউক্রেনে আমেরিকার অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পাঠানোর কথা উল্লেখ করে গবেষক ব্র্যাঙ্কো মার্সেটিক তার নিবন্ধে বলেন, আমেরিকা ও ন্যাটো জোট তাদের অতীতে নিজেদের ঘোষিত অস্ত্র সরবরাহের সীমারেখা ছাড়িয়ে গেছে।

নিবন্ধে বলা হয়, কয়েক মাস আগে ন্যাটো জোটভুক্ত দেশের সরকারগুলো যে পরিমাণ অস্ত্র সরবরাহ করা নিয়ে চিন্তিত থাকতো যে, এতে ন্যাটো জোট সরাসরি রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধে জড়িয়ে যেতে পারে, এখন আমেরিকা এবং ইউরোপের সরকারগুলো সেই পরিমাণ অস্ত্র ও ট্যাংক এবং সাজোয়াযান পাঠানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে।

এই গবেষণা নিবন্ধে আরও বলা হয়েছে, গত বছর যুদ্ধ শুরুর পর জোর দিয়ে বলা হয়েছিল যে, আমেরিকার সেনারা এখানে জড়িত নেই, ভবিষ্যতেও জড়িত হবে না। কিন্তু তারপরও ইউক্রেনে সিআইএ এবং মার্কিন স্পেশাল ফোর্সের সদস্যদের উপস্থিতি নিয়ে খবর বের হয়েছে এবং তারা আমেরিকার গোপন অভিযানে অংশ নিচ্ছে। এগুলো এমনসব তৎপরতা যা বিপজ্জনকভাবে রাশিয়া ও ন্যাটোজোটকে সরাসরি যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে।

নিবন্ধে ইউক্রেনে ন্যাটো জোটের দুঃসাহসিকতার বিষয়টিকে বিশেষভাবে তুলে ধরা হয়েছে। এতে প্রশ্ন তোলা হয়েছে যে, আমেরিকা ইউক্রেনকে যেভাবে তার ঘোষিত সীমালঙ্ঘন করে অস্ত্র এবং সামরিক সরঞ্জাম দিচ্ছে তাতে কতদিন দীর্ঘ পাল্লার ড্রোন, ট্যাংক এবং দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ও এফ-সিক্সটিন জঙ্গিবিমান দেয়া থেকে তারা বিরত থাকবে।

সূত্র : পার্সটুডে

নয়া শতাব্দী/আরআর

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ