ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

'শেখ রাসেলের আদর্শ শিশুদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে'

প্রকাশনার সময়: ২৪ নভেম্বর ২০২২, ২১:০৯ | আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২২, ২১:১৩

শেখ রাসেল বেঁচে থাকলে আমরা একজন ভাল নেতা পেতে পারতাম বলে মন্তব্য করেছেন পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন। বলেন, ‘শিশুরা হল মানবতা এবং সরলতার প্রতীক। এদের কোন পাপ নাই। অথচ এই নিষ্পাপ শিশুগুলোকে কখনো কখনো হত্যা করতে মানুষ দ্বিধা করে না। এরকমই একটি উদাহরণ ১৯৭১ সালের ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার সেইদিনে ঘাতক দল শিশু রাসেলকেও হত্যা করতে কুণ্ঠাবোধ করেনি। একটা শিশুকে যখন হত্যা করা হয় তখন একটা জাতিকে হত্যা করা হয়। ১৫ আগস্টের হত্যাকান্ডে এদেশের কিছু মানুষ সেই ঘৃণ্য কাজটি করেছে।’

বুধবার (২৩ নভেম্বর) সন্ধ্যায় পাবনা জেলা শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদ শাখা আয়োজিত পুরষ্কার বিতরণী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচকের আলোচনায় এসব কথা বলেন পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন।

এ সময় তিনি বলেন, শেখ রাসেলকে ছোটবেলায় স্কুলে যেতে দেখেছি। আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী সে তখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবরেটরি স্কুলে পড়ত। আমার বোনের ছেলে মেয়েরাও সেই স্কুলে পড়ত। সে স্কুলে অন্যান্য শিক্ষার্থীদের সাথে খেলাধুলা করতো, মিশতো। সে যে একজন রাষ্ট্রপ্রধানের ছেলে সেটা বুঝার উপায় ছিল না। একটি শিশু অন্য শিশুদের সাথে শিশুর মতই আচরণ করবে। শেখ রাসেলও তাই করত। রাসেলের জীবন সহজ সরল ছিল। ছোট সেই রাসেলের অনেকগুলো আদর্শ আছে। আমাদের শিশুদের মাঝে শেখ রাসেলের সেই আদর্শকে ছড়িয়ে দিতে হবে। যদি আমরা সেই কাজটি করতে পারি তাহলে আমরা অনেক দূর এগিয়ে যেতে পারব।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা শিশু কিশোরদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য বলেন, আজকে যারা এখানে এসেছ তাদের অনেকে পুরস্কার পাবে অনেকে পাবে না। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু মন খারাপ করা যাবে না। নিজেদের মধ্যে সংকল্প দৃঢ় করতে হবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, মানুষ এগিয়ে যাচ্ছে। এই এগিয়ে যাওয়ার সাথে তোমাদেরও অংশগ্রহণ করতে হবে। সামনের দিন আমাদের আরো সুন্দর হবে, আমরা সামনের দিকে আরো এগিয়ে যাবো।

শেখ রাসেল দিবস ২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত এই পুরষ্কার বিতরণী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থি ছিলেন পাবনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবনা জেলা প্রশাসক বিশ্বাস রাসেল হোসেন, পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুনসী। অনুষ্ঠানে বরেণ্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ রেজাউল রহিম লাল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদ পাবনা জেলা শাখার সভাপতি মো. কামরুজ্জামান রকি।

নয়া শতাব্দী/জেআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ