ঢাকা, রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাবি স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন অব ফেনীর নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

প্রকাশনার সময়: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:২৯ | আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:৩২

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত ফেনী জেলার শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন অব ফেনী (জুসাফ)’-র নবীনবরণ ও বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের সেমিনার কক্ষে এর আয়োজন করা হয়।

সাধারণ সম্পাদক জোবায়েদ আশিকের সঞ্চালনায় প্রারম্ভিক বক্তব্যে সভাপতি সাজ্জাদ শোয়াইব চৌধুরি বলেন, আমাদের দীর্ঘদিনের অপেক্ষার পর আজকের এই অনুষ্ঠান। ফেনী নদীর নাম থেকে এই জেলার নামকরণ। আয়তনের ছোট হলেও দেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নগরী আমাদের এই জেলা। জুসাফ বিশ্ববিদ্যালয়ে আগত শিক্ষার্থীদের একটি মিলনস্থল। আজকের মতো একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা আমাদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল। আজ তা পূরণ হয়েছে। ফেনীর শিক্ষার্থীদের পাশে জুসাফ ছিল, আছে ও থাকবে।

বিশেষে অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরি বলেন, একজন বঙ্গবন্ধু এই বাংলাকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন। আমরা তার আদর্শে উজ্জিবিত হয়ে সুন্দর দেশ গড়ার প্রচেষ্টায় আছি। আসুন সবাইকে পরিবর্তন করতে পারি বা না পারি অন্তত একজনকেও পরিবর্তন করার অঙ্গীকার নিই। আর ফেনীর শিক্ষার্থীরা ফেনীকে একটি আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আমাদের প্রচেষ্টা সব সময় থাকবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের পিতা-মাতার বহু কষ্টে এখানে পড়ালেখা করাচ্ছে। অথচ এর বিনিময়ে তারা তোমাদের কাছে কিছুই প্রত্যাশা করেন না। প্রত্যাশা থাকবে তোমরা সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে ফেনীকে একটি আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলার প্রচেষ্টায় অংশীদার হবে।

তিনি আরও বলেন, এই ফেনীতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড অনেক বেশি ছিল, কিন্তু আজ এর পরিবেশ পরিবর্তন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর শক্ত হাতে আমরা ফেনীকে একটি শান্ত নগরীতে রূপান্তর করতে পেরেছি। ফেনীকে আরও পরিবর্তন করার জন্য আপনাদের সকলের সহায়তা প্রয়োজন। ফেনীর মানুষ দুই যুগ শান্তি পায় নি, তারা যেন শান্তিতে বসবাস করতে পারে, তার জন্য সবসময় কাজ করে যেতে চাই।

এসময় ফেনী জেলা থেকে জাবিতে চান্স প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয় ও শিক্ষাজীবন শেষ হওয়া শিক্ষার্থীদের বিদায়ী সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে এনসিসি ব্যাংকের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট জালাল উদ্দীন পাপ্পু, রেজা গ্রুপের চেয়ারম্যান এ কে এম সাহিদ রেজা শিমুল, জেলা সমিতির প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি এ এস এম জিন্নাহ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক তানজিলুল ইসলাম সহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

নয়া শতাব্দী/এফআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ