ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

অগ্নি সিস্টেমসের বিরুদ্ধে আসছে কঠোর পদক্ষেপ!

প্রকাশনার সময়: ৩০ মে ২০২২, ১১:৩৮

পুঁজিবাজারে প্রযুক্তি খাতে তালিকাভুক্ত কোম্পানি অগ্নি সিস্টেমসের উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের সম্মিলিতভাবে ৩০ শতাংশ শেয়ারধারণ দুই কার্যদিবসের মধ্যে পূরণ করার নির্দেশ দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। একইসঙ্গে এ বিষয়ে কোম্পানিটির অগ্রগতি সম্পর্কিত সহায়ক নথিসহ সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি। যদি নির্দিষ্ট সময়ে ৩০ শতাংশ শেয়ারধারণ পূরণ করতে না পারে, তবে কোম্পানির বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে কমিশন।

সম্প্রতি অগ্নি সিস্টেমসের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে এ সংক্রান্ত বিষয়ে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে বলে বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে। এর আগে চলতি বছরের ১৬ মে কোম্পানিটির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনা করে কমিশন। ওই আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। কোম্পানিটির সঙ্গে বিএসইসির আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ। এ সময় অগ্নি সিস্টেমসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আব্দুস সালাম, পরিচালনক জিয়া সামসি, স্বতন্ত্র পরিচালক ড. মানসুরা আক্তার, স্বতন্ত্র পরিচালক মোহাম্মদ রিদওয়ানুল হক ও কোম্পানি সচিব মো. নূর-উল-আলম উপস্থিত ছিলেন। এদিকে বৈঠকে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মো. সাইফুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের অন্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে কমিশনের পক্ষ থেকে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের শেয়ার ধারণ ৩০ শতাংশে উন্নীত করার বিষয়ে একাধিকবার জিজ্ঞাসা করা হলেও কোম্পানির পক্ষ থেকে কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি। ফলে এ বিষয়টি নিয়ে খুবই তার হতাশা প্রকাশ করেছে কমিশন। বৈঠকে এ সম্পর্কে কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, তারা এরইমধ্যে একজন প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীকে পর্ষদ আনার জন্য যোগাযোগ করা হয়েছে। যেটা এখনো চলমান রয়েছে। আর কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদে বিনিয়োগকারী নিতে প্রায় তিন মাস সময় লাগতে পারে। তবে কমিশন জানায়, এ বিষয়ে কোম্পানিটির কার্মকাণ্ডে তা প্রতিফলিত হয় না।

এদিকে বৈঠকে কোম্পানির বিভিন্ন উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের বর্তমান শেয়ার ধারণের অবস্থান সম্পর্কে আলোকপাত করা হয়। বিএসইসি জানায়, কোম্পানিটির উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের বর্তমানে ২৩ দশমিক ৮১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। এর মধ্যে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের হাতে ১৪ দশমিক ৪৭ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। যেখানে ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুস সালাম এবং পরিচালক জিয়া শামসি যৌথভাবে মাত্র ৯ দশমিক ৩৩ শতাংশ ধারণ করছে। কিন্তু আইসিবি মাত্র ৫ শতাংশ ধরে রাখতে পারে বলে জানান কমিশন। ভবিষ্যতে আইসিবি যদি বাকি শেয়ার বিক্রি করে দেয় তখন কোম্পানি কী করবে— এমন প্রশ্ন তোলে কমিশন। এ প্রশ্নের জবাবে কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান, শিগগিরই প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে শেয়ার ধারণ ৩০ শতাংশে উন্নীত করা হবে। বৈঠকে কমিশন ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট সময়সীমা চায়। কিন্তু কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কোনো বিশ্বাসযোগ্য সময়সীমা দিতে ব্যর্থ হয়। তাই কোম্পানিটিকে এই চিঠি পাওয়ার দুই কার্যদিবসের মধ্যে ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণের সমস্ত আনুষ্ঠানিক নথিসহ একটি সম্পূর্ণ পরিকল্পনা জমা দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানিয়েছে কমিশন। এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএসইসির এক কর্মকর্তা নয়া শতাব্দীকে বলেন, কোম্পানিটির ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণের বিষয়ে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের একাধিকবার জিজ্ঞাসা করা হলেও তাদের পক্ষ থেকে কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি। তাই কমিশন কোম্পানিটিকে দ্রুত ৩০ শতাংশ শেয়ার ধারণের নির্দেশ দিয়েছে। একইসঙ্গে এ প্রক্রিয়ার প্রয়োজনীয় নথিসহ পূর্ণাঙ্গ পরিকল্পনা জমা দিতে বলা হয়েছে।

নয়া শতাব্দী/এসএম

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ