ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিনিয়োগ বাড়ছে শেয়ারবাজারে

প্রকাশনার সময়: ০১ এপ্রিল ২০২২, ০৯:২১

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা। তাতে বাজারে তারল্য বাড়াবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তারা। শেয়ারবাজারে তারল্য বাড়ানো ও সার্বিক বাজার পরিস্থিতি নিয়ে স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে বৈঠক শেষে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম এ কথা জানান।

বুধবার সন্ধ্যায় শেষ হওয়া বৈঠকে অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিজ অ্যান্ড মিউচ্যুয়াল ফান্ডস (এএএমসিএমএফ)-এর সভাপতি ড. হাসান ইমাম, বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি ছায়েদুর রহমান, ডিএসই ব্রোকারেজ অ্যাসোসিয়েশনের (ডিবিএ) সভাপতি রিচার্ড ডি রোজারিও ও ক্যাপিটাল মার্কেট স্টাবিলাইজেশন ফান্ডের (সিএমএসএফ) প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা মো. মনোয়ার হোসেনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

রেজাউল করিম বলেন, বৈঠকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর সংখ্যা বৃদ্ধিসহ বিদ্যমানদের আর্থিক সক্ষমতা বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা হয়। বিএমবিএর ১০ হাজার কোটি টাকার প্রস্তাবের বিষয়ে বৈঠকে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। যা যাচাই-বাছাই শেষে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হবে। এছাড়াও মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোর নিজস্ব পোর্টফোলিওর মাধ্যমে রমজান মাসে নতুন করে ২০০-৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ বিষয়ে বিএমবিএ সভাপতি প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবেন।

রেজাউল করিম বলেন, বিএমবিএর পাশাপাশি ডিবিএর প্রেসিডেন্ট স্টক ব্রোকার ও ট্রেকহোল্ডারদের ডিলার অ্যাকাউন্টে বিনিয়োগ বাড়ানোর বিষয়ে আশ্বস্ত করেছেন। তারা প্রতিটি ডিলার অ্যাকাউন্টে রমজান মাসে কমপক্ষে ১ কোটি টাকা করে বিনিয়োগ করবেন। এতে শেয়ারবাজারে নতুন ২৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগের আশা করা যাচ্ছে। তিনি বলেন, গত কয়েকদিন মিউচ্যুয়াল ফান্ডগুলো থেকে শেয়ারবাজারে বড় সাপোর্ট দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন মিউচ্যুয়াল ফান্ড অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হাসান ইমাম। যার ফলে বাজারে কিছুটা লেনদেনের উন্নতি দেখা গেছে। তারা রমজান মাসেও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের এবং ফান্ডগুলো থেকে বিনিয়োগের ধারা অব্যাহত রাখবেন। এদিকে, স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডের থেকে ১০০ কোটি টাকা আইসিবির মাধ্যমে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান রেজাউল করিম। এছাড়াও আগামীতে আরো কার্যকরী উপায়ে স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডের টাকায় বিনিয়োগ বৃদ্ধি করা হবে। যার উল্লেখযোগ্য অংশ রমজান মাসে বিনিয়োগ করা হবে।

নয়া শতাব্দী/এম

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ