ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভাগাড়ের আবর্জনা রাস্তায়

প্রকাশনার সময়: ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৭:৫৯

রামগঞ্জ পৌর শহরের প্রধান সড়ক রামগঞ্জ-হাজীগঞ্জ সড়কের পুলিশ বক্স সংলগ্ন এলাকায় রামগঞ্জ পৌর কর্তৃপক্ষের ফেলা ময়লা -আবর্জনার কারণে সড়কের পশ্চিম পাশ এখন ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে।

ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় ও দীর্ঘদিন পর্যন্ত শহরের সব ধরনের ময়লা-আবর্জনা শহরের ব্যস্ততম সড়কের পাশে ফেলার কারণে রাস্তায় চলাচলরত স্থানীয় জনসাধারণের মাঝে দেখা দিয়েছে চরম নাভিশ্বাস। প্রায় ১ কিলোমিটার ময়লার এ ভাগাড়ের কারণে স্থানীয় বাসাবাড়ির বাসিন্দা ও ব্যবসায়ীরা মারাত্মক দুর্গন্ধে আশপাশে বসবাসে পোহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। স্কুল ও কলেজ শিক্ষার্থীরাসহ এই রাস্তায় যাতায়াতকারী মানুষ দুর্গন্ধ ও ময়লা পানি ডিঙ্গিয়ে চলাচল করছে বাধ্য হয়ে।

বিষয়টি সমাধানে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও পৌর কর্তৃপক্ষকে বার বার বলার পরও কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় পৌরবাসীর ভোগান্তি বেড়েই চলছে বলে অভিযোগ করেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

স্থানীয় নির্মাণসামগ্রী ব্যবসায়ী এমরান হোসেন রাসেল জানান, প্রথম শ্রেণির পৌরসভা হলেও সুযোগ-সুবিধার দিক থেকে আমরা জঘন্য একটা পরিবেশে বসবাস করতে বাধ্য হচ্ছি। ময়লা আর নোংরা পরিবেশের কারণে একদিকে চড়াচ্ছে মারাত্মক দুর্গন্ধ অন্যদিকে ডেঙ্গু ও পানিবাহিত রোগের বিস্তারও বাড়ছে।

সিএনজি অটোরিকশা পার্টস বিক্রেতা মো. বাবু জানান, ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টি হলে শহরের সংযোগ সড়কগুলো পানিতে নিমজ্জিত হয়। আমরা দ্রুততম সময়ে এ নোংরা ও দুর্গন্ধযুক্ত পরিবেশ থেকে নিস্তার পেতে চাই। না হলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে মারাত্মক পরিবেশ বিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে রামগঞ্জ পৌরবাসী। ময়লা পানির কারণে বাড়ছে পানিবাহিত রোগ ও মশার উপদ্রব।

রামগঞ্জ সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী বিল্লাল হোসেন ও রামগঞ্জ মডেল ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী রাফিয়া নাসরিন জানান, দুর্গন্ধে রাস্তায় দিয়ে চলাফেরা করা দায়। বাধ্য হয়ে অন্য সড়ক দিয়ে ঘুরে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে আমরা যাতায়াত করি।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন জানান, পৌরসভার মেয়রকে প্রথম থেকে বলা হয়েছে শহরের ওপর এভাবে ময়লা আবর্জনার ফেলার কারণে পরিবেশ বিপর্যয় দেখা দিতে পারে। তিনি আমার কথা কর্ণপাত না করে পুলিশ বক্স সংলগ্ন ডোবাগুলো শহরের প্রতিদিনকার বর্জ্য দিয়ে ভরাট অব্যাহত রেখেছেন। এলাকার মানুষ চরম কষ্টে দিনাতিপাত করছে দুর্গন্ধে।

রামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবুল খায়ের পাটোয়ারী জানান, পৌর শহরে যত্রতত্রে ট্রাকগুলো পার্কিং করার কারণে যানজটের সৃষ্টি হয়। এছাড়া সিএনজি অটোরিকশার কারণে স্টেশনেও এলোমেলো গাড়ি রাখা হয়। ফলে আমি শহরের পাটবাজার সংলগ্ন এলাকার ডোবাগুলো ভরাট করা হচ্ছে। তবে তিনি দুর্গন্ধ ছড়িয়ে রোধে কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেননি।

নয়াশতাব্দী/এফআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ