রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

এ্যাম্বুলেন্স চালক যখন চিকিৎসক!

প্রকাশনার সময়: ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৫:১৯

নাটোরের লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে চিকিৎসকের ভূমিকায় এ্যাম্বুলেন্স চালকের একটি ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। ওই ছবিতে দেখা যায়, ওই ব্যক্তির কানে স্টেথিস্কোপ। সামনে এক রোগীকে দেখছেন তিনি।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) রাতে ওই ছবিটি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় নানা আলোচনা-সমালোচনা।

ছবিতে চিকিৎসকের ভূমিকায় থাকা ব্যক্তির নাম আমজাদ হোসেন। তিনি ওই হাসপাতাল কেন্দ্রিক একটি বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্সের চালক। তার বাড়ি লালপুরের রামকৃষ্ণপুর এলাকায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাসপাতালের আরএমও সুরুজ্জামান শামীম জানান, আমজাদ মাঝে মাঝে বেসরকারী এ্যাম্বুলেন্স চালায়। যখন কাজ থাকে না তখন হাসপাতাল চত্বরে দালালি করে। স্থানীয় ও প্রভাবশালী হওয়ায় স্টাফদের সাথেও তার সম্পর্ক রয়েছে। তাই প্রায়ই সে কোন রোগী আসলে আগ বাড়িয়ে তাদের সাথে পরিচিত হয়ে তাদের সমস্যা সমাধান করিয়ে রোগীর স্বজনদের থেকে কিছু আর্থিক সুবিধা নিতে চায়।

ওই ঘটনাটা এমনই হতে পারে দাবি করে তিনি জানান, ওই সময়ে তিনি রোগীর খোঁজ নিতে রাউন্ডে ছিলেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আমজাদ জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে পাশের মোমিনপুর এলাকার মারামারিতে আহত এক রোগী আসে। সেসময় স্টাফ ইয়াসমিন তাকে ওই রোগীর প্রেসার মাপতে বললে তিনি ওই কাজ করছিলেন। এসময় কেউ জানালা দিয়ে গোপনে ছবি তুলে ফেসবুকে ছড়িয়ে দিয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার একেএম শাহাবুদ্দিন বুধবার সকালে জানান, বাইরের কোন লোক কোনক্রমেই জরুরী বিভাগে ওরকম কাজ করতে পারেনা। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

নয়াশতাব্দী/এমএস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ