রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

প্রেমের দায়ে জেলে গেলেন সাকিব

প্রকাশনার সময়: ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৩:৫২

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর উপজেলায় প্রেমিকার মায়ের দায়ের করা মামলায় সাকিবুল ইসলাম (২০) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত সাকিব লাউর ফতেহপুর ইউনিয়নের লাউর ফতেহপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে।

জানা গেছে, একই গ্রামের মনিরুল ইসলামের মেয়ে সাদিয়া আক্তার জান্নাতের (১৬) সঙ্গে সাকিবের দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক। শনিবার এই সূত্র ধরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক সাকিবুল ইসলামের বাড়িতে এসে অনশনে বসে সাদিয়া। খবরটি এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করে এবং গ্রামের কৌতুহলী মানুষ সাকিবের বাড়িতে ভিড় জমায়।

রোববার (০২ অক্টোবর) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শনিবার দুপুর থেকে সাকিবুল ইসলামের বাড়িতে কিশোরী সাদিয়া বিয়ের দাবিতে অনশন করছে। সে এ বছর স্থানীয় একটি স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। এর আগেও দুইবার একই দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে উঠেছিল মেয়েটি। সেই সময় মেয়ের অভিভাবকরা তাকে সাকিবুলের সঙ্গে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

সাদিয়া জানায়, দীর্ঘদিন ধরে সাকিবুল ইসলামের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক। সাকিবুলের পরিবার আমাদের সম্পর্ক মেনে নিলেও আমার পরিবার নিচ্ছে না। পারিবারিকভাবে আমাকে অন্যত্র বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে। তাই আমি নিজের ইচ্ছায় সাকিবুলের বাড়িতে এসে বিয়ের জন্য অনশন করছি।

সাকিবের মা ফেরদৌসী বেগম বলেন, আমরা চাই বিষয়টি সামাজিকভাবে সমাধান হোক।

এদিকে, রোববার (০২অক্টোবর) সাদিয়া আক্তার জান্নাতের মা নাজমা বেগম বাদী হয়ে নবীনগর থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ বাড়িতে এলে সাকিবের পরিবারের লোকজন সাদিয়াসহ সাকিবকে পুলিশে সোপর্দ করেন।

সোমবার (০৩ অক্টোবর) সাদিয়া আক্তার জান্নাত অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় তাকে ভিক্টিম হিসেবে এবং সাকিবকে আসামি করে কোর্টে প্রেরণ করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তি জানান, তাদের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। মেয়েটি একাধিকবার ছেলের বাড়িতে চলে এসেছে আর বার বার মেয়ের পরিবার তাকে বুঝিয়ে নিয়ে গিয়েছে। শনিবার পুনরায় সে সাকিবুলের বাড়িতে এলে তার পরিবারের লোকজন তাকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। রোববার বেলা আনুমানিক ১২টার দিকে স্থানীয় হুজুর এনে ইসলামী শরীয়া মোতাবেক তাদের বিয়ে পড়ানো হয়। তবে মেয়েটি অপ্রাপ্ত বয়স হওয়ায় কাবিন হয়নি।

নবীনগর থানার ওসি সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, মেয়ের মা বাদী হয়ে নবীনগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করলে আসামিকে গ্রেফতার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ