ঢাকা, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

কেন্দুয়ায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

প্রকাশনার সময়: ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৮:২০

নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। ঘটনাটি রোববার (২ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার ছিলিমপুর গ্রামে ঘটে।

সূত্র জানায়, অটোরিকশার ভাড়া আদায়কে কেন্দ্র করে ছিলিমপুর গ্রামের দুলাল মেম্বার ও ফয়সাল মিয়া মধ্যে গংদের সাথে কথার কাটাকাটি এক পর্যায়ে সংঘর্ষ বাঁধে। খবর পেয়ে কেন্দুয়া থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় পুলিশ ১৮ রান রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেন।

সংঘর্ষে গুরুতর আহত রাতুল খান (২২), খলিলুর রহমান খান (৩০) সাকিব (২২), রাব্বী (১৮), তরিকুল (২২)-কে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক। এ ছাড়াও শাহিদুল খান (১৮), নজরুল (৪৫), কাইয়ুম (৩৫), হাদিস (৪৫), আলাল উদ্দিন (৩৫), আতিক (৩০), ওয়াসীম (৩০), মেনা মিয়া (৩৫), আমিনুল (২৫), আশরাফুল (১০), আয়াত মিয়া (৭০), এমদাদুল (২২), আ. হাকিম (৩০), সুজন (৩০), আতিকুর (২৩), সায়মন (২১), সাতু মিয়া (৫০), মাজু মিয়া (৩২), ফয়সাল (২৫), রাজিব (৩২), মিন্টু (৩৬), আবুল হাসেম (৫০), জসিম উদ্দিন (৫৫), আশরাফুল (২৬), কামরুল (৫৫), তামিম (২০), সাকিব (১৮), বায়োজিদ (৫৫), আবুল কাশেম (৪৭), হৃদয় (১৮), হাইজুল (৩৫)।

অন্যদিকে কিছু রোগী তাড়াইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন। এদের মধ্যে কামরুলসহ ৫ জনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে একটি সূত্রে জানা গেছে। এ সময় ইব্রাহিমের বাড়িঘর ব্যাপক ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময়ে আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটার আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা।

কেন্দুয়া থানা ওসি আলী হোসেন জানান, বর্তমানে এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে। পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।

নয়াশতাব্দী/এফআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ