ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

শৌচাগার আছে সিঁড়ি নেই!

প্রকাশনার সময়: ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:০৭

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সদর বাজারে ব্যবহার করার জন্য নেই কোন গণশৌচাগার। একটি থাকলেও সেটি ব্যবহারের অনুপযোগী। ফলে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে ব্যবসায়ীসহ বাজারে আসা ক্রেতাদের।

প্রতিদিন টাংগুয়া হাওর, টেকেরঘাট নিলাদ্রী লেক সহ বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে আগত পর্যটকদের বিশাল সমাগম হয় এ বাজারে। এছাড়াও প্রতি বুধবার সপ্তাহের হাট বসে এই বাজারে। এই দিন শতাধিক দোকান বসে তাহিরপুর সদর বাজারের অলিগলিতে। কিন্তু বাজারে নেই কোনো শৌচাগার।

বুধবার (৮সেপ্টেম্বর) সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ব্যবসায়ী ও টাংগুয়ার হাওরে আগত পর্যটকদের সুবিধার্থে ২০১৭ সালে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর তিন লাখ ৮০ হাজার টাকা ব্যয়ে একটি গণশৌচাগার নির্মাণ করে। পাঁচ বছরের মধ্যেই এ গণশৌচাগারটি একেবারেই ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে।

বাজারের ব্যবসায়ী কিংকর রায় বলেন, আমি সকালে ব্যবসার উদ্দেশ্যে বাজারে আসি। সারাদিন বাজারেই থাকি কিন্তু বাজারে ব্যবহারের উপযোগী কোন শৌচাগার না থাকায় অনেক সমস্যায় পড়তে হয়।

পর্যটকবাহী নৌকা মালিক সমিতির সভাপতি শাহিনুর তালুকদার বলেন, তাহিরপুর বাজারে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে শত শত পর্যটক আসে কিন্তু এ বাজারে কোন গণশৌচাগার নেই। এজন্য পর্যটকদের দুর্ভোগে পড়তে হয়।

তাহিরপুর সদর ইউপি সদস্য তুজাম্মিল হক নাছরুম বলেন, তাহিরপুর সদর বাজারে ব্যবহার করার শৌচাগার নেই এটি আসলেই দুঃখজনক। এ বাজারে পর্যটক সহ উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন থেকে শত শত মানুষের সমাগম ঘটে। বাজারে ভালো মানের একাধিক গণশৌচাগার প্রয়োজন।

তাহিরপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি আবিকুল ইসলাম বলেন, পাঁচ বছর আগে বাজারে একটি গণশৌচাগার নির্মাণ করা হয়। কালবৈশাখী ঝরে শৌচাগারের উপরে বসানো পানির ট্যাংকটি উড়ে যায়। সিঁড়িগুলো খসে নিচে পড়ে আছে। এটি এখন ব্যবহার অনুপযোগী। প্রশাসনকে এ শৌচাগারটিকে উপযোগী করতে এবং নতুন শৌচাগার তৈরি করে দেয়ার জোর দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে তাহিরপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যান জুনাব আলী বলেন, এ বিষয়টি আমি অবগত আছি। সামনের কোন বরাদ্দ থেকে পুরাতন শৌচাগারটি ব্যবহার উপযোগী ও নতুন শৌচাগার তৈরি করার চেষ্টা করবো।

নয়াশতাব্দী/এমএস

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ