ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বকেয়া পাওনার দাবিতে মহাসড়কে চিনিকল শ্রমিকরা

প্রকাশনার সময়: ১০ এপ্রিল ২০২২, ১৬:০৩

মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে এবং থালা হাতে নিয়ে ফরিদপুর চিনিকলের অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারী ও কর্মকর্তারা তাদের বকেয়া পাওনার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।

রোববার (১০ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে ঢাকা-খুলনা সহাসড়কের মধুখালী রেলগেট এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

ফরিদপুর চিনিকল অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তা কল্যাণ সমিতির সভাপতি আলী আকবর শেখের সভাপতিত্বে মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন ফরিদপুর চিনিকলের সাবেক কৃষি কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম, সাবেক শ্রমিক নেতা মোঃ জহুরুল হক, আবুল বাশার বাদশা, মোঃ সিদ্দিকী আলী খান, মোঃ রেজাউল হক, মোঃ ফিরোজ মিয়া ও মোঃ রফিকউদ্দিন শেখ প্রমুখ।

বক্তাগণ বলেন, ফরিদপুর চিনিকলের প্রায় ৩০০ শ্রমিক-কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের গ্রাইচ্যুটি, সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরী কমিশন ও বেতন স্কেলের বকেয়া সহ ফরিদপুর চিনিকলের কাছে প্রায় ২৫ কোটি টাকা পাওনা রয়েছে। ৬/৭ বছর অবসর গ্রহণ করলেও বকেয়া পাওনা পাচ্ছি না। বকেয়া পাওনা না পাওয়ার কারণে ৩০০ পরিবার মানবেতর ভাবে জীবনযাপন করছে। মানবতার জননী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের আকুল আবেদন ফরিদপুর চিনিকলের অবসরপ্রাপ্তদের ৩০০ পরিবার রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। মানববন্ধনে অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারী কর্মকর্তাগণ মাথায় কাফনের কাপড় বেঁধে এবং থালা হাতে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা কামনা করেন। মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে টিএন্ডটি মোড়ে এসে শেষ হয়।

এ বিষয়ে ফরিদপুর চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: খবিরউদ্দিন মোল্যা বলেন, চিনিকলের ৩২১ জন শ্রমিক, কর্মচারী ও কর্মকর্তা অবসরে গিয়েছেন। এর মধ্যে ২১ জনকে তাদের পাওনাদি পরিশোধ করা হয়েছে। এছাড়া প্রায়ই দুই একজন করে অবসরে যাচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, চিনিকলে লোকসানের কারণে তাদের পাওনাদি দিতে সমস্যা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই সদর দপ্তর থেকে ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা এনে অবসরপ্রাপ্তদের দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান অবগত রয়েছেন। সদর দপ্তর বিষয়টি সমাধানে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

নয়া শতাব্দী/এমআরএইচ

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ