ঢাকা, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দেনদরবারে স্বার্বভৌমত্ব কতটুকু বিক্রি করেছে, এটাই দেখার বিষয়: রিজভী

প্রকাশনার সময়: ০৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:২৭

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের মানুষকে বিপদে ফেলে এ সময়ে ভারতে গিয়ে ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে ব্যর্থ হয়েছেন। তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে পারেননি, সীমান্ত হত্যা বন্ধ করতে পারেননি। বরং পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে কথা বলেছিলেন, ক্ষমতায় টিকে থাকতে দেনদরবার করতে গেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই দেনদরবার করতে গিয়ে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব কতটুকু বিক্রি করছেন এটাই এখন দেখার বিষয়। জনগণ চেয়ে আছেন প্রধানমন্ত্রী সেখানে গিয়ে কি করছেন কতটুকু স্বার্বভৌমত্ব বিক্রি করে নিজের অবৈধ ক্ষমতা টিকে রাখার চেষ্টা করছেন।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ মহিলা দলের নেত্রীদের নিয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক হেলেন জেরিন খান, দক্ষিণের আহ্বায়ক রুমা আক্তার ও সদস্য সচিব নাসিমা আক্তার কেয়া প্রমুখ।

রিজভী বলেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিএনপির শান্তিপূর্ণ সমাবেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কি নির্মমভাবে আক্রমণ করছে প্রতিনিয়ত প্রতিমুহূর্তে। গতকালও নাটোরের লালপুরে হামলা করা হয়েছে। কারও কোন কথা বলার অধিকার নেই। দেশে যে অন্যায়গুলো হচ্ছে সেগুলাের প্রতিবাদ যারা করছে তাদের উপর নির্মমভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে। সভা সমাবেশ করা স্বার্বজনীন গণতান্ত্রিক অধিকার কিন্তু সমাবেশ যারা করছে তাদেরকর নিষ্ঠুরভাবে দমন করা হচ্ছে।

বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর আক্রমণ করেই তারা ক্ষান্ত হননি উল্লেখ করে তিনি বলেন, আক্রমণে কারো চোখ চলে যাচ্ছে কেউ পঙ্গুত্ব বরণ করছে। ইতোমধ্যে তিনজনের জীবন কেড়ে নেওয়া হয়েছে। মামলা দেওয়া হচ্ছে শতশত নেতাকর্মী আজ বাড়িছাড়া গ্রামছাড়া ঘরছাড়া। এ অবস্থার মধ্যে তারা দিনাতিপাত করছে।

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশের মাটিতে মর্টার শেল পড়ার সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, এটা নির্বাচিত সরকার নয়। তোদের জনভিত্তি নেই বলেই অত্যন্ত দুর্বল ও নতজানু পররাষ্ট্রনীতি। না হলে এরকম একটা পরিস্থিতিতে একটি শক্ত যে ভাষা, সেই ভাষাটাও পররাষ্ট্রমন্ত্রী বা সরকারের কেউ দিতে পারছে না। কারণ তাদের সমর্থন নেই। অন্যান্য দেশের সমর্থনে তাদের টিকে থাকতে হয়। এ কারণে তারা পারছে না, নতজানু হয়ে থাকছে।

রিজভী আরো বলেন, আজকে যদি নির্বাচিত সরকার হতো তাহলে জোরালো প্রতিবাদ তাদের ভাষা হতো। সার্বভৌমত্ব এখানে লঙ্ঘন হচ্ছে কিন্তু শক্ত জোরালো কোনো প্রতিবাদ হচ্ছে না।

বিএনপি নিজেরাই দেশকে অস্থিতিশীল করতে সারাদেশে হামলা করছে সরকার দলীয় নেতাদের এমন বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, এটা যুগে যুগে একদলীয় কর্তৃত্ববাদী শাসকরা করে আসছেন। গণতান্ত্রিক শক্তির উপর তারা বুলডোজার স্টীম রোলার চালিয়ে তারাই আবার মিথ্যা স্টেটমেন্ট দেন।

নয়াশতাব্দী/জেডআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ