রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

দেশজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা

প্রকাশনার সময়: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:০২

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে কাল থেকে।গত বছরের সহিংসতার বিষয়টি মাথায় রেখে এবারের দুর্গাপূজা ঘিরে দেশজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

শনিবার (১ অক্টোবর) পূজার প্রথম দিন থেকে বুধবার পর্যন্ত সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থানে থাকবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

জানা গেছে, গুরুত্বপূর্ণ মন্দিরগুলোর তালিকা করে প্রতিটি মণ্ডপ ঘিরে নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। প্রতিটি মণ্ডপে সার্বক্ষণিক আনসার সদস্যের পাশাপাশি র‌্যাব-পুলিশের সদস্যরা টহলে থাকবেন। মাঠপর্যায়ে সাদা পোশাকে গোয়েন্দা নজরদারি, গুজব প্রতিরোধ, সিসিটিভি ক্যামেরা, সোয়াট, বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট, র‌্যাবের হেলিকপ্টারসহ স্ট্রাইকিং ফোর্স ও ডগ স্কোয়াড ইউনিট প্রস্তুত থাকবে।

এ ছাড়া কোনো মহল যেন উদ্দেশ্যমূলকভাবে নাশকতা ঘটাতে না পারে এবং দেশজুড়ে অন্তত ৫০ জন যুবকের বাড়ি ছেড়ে জঙ্গি সংগঠনে জড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কার বিষয়টিও নিরাপত্তা বিবেচনায় রাখা হয়েছে।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, দুর্গাপূজা ঘিরে সুনির্দিষ্ট কোনো হুমকি বা হামলার তথ্য পাওয়া যায়নি। তারপরও শান্তিপূর্ণভাবে পূজা সম্পন্ন করতে শতভাগ নিরাপত্তা প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. চন্দ্রনাথ পোদ্দার বলেন, নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকার আন্তরিক। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি আমরাও প্রতিটি মণ্ডপে স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে নিজস্ব নিরাপত্তার ব্যবস্থা করছি। এ ব্যাপারে পূজা আয়োজকদের ২১ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেখানে আর্থিক সঙ্গতি সাপেক্ষে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন এবং সরকারি নির্দেশনা মেনে মন্দিরে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা রেখে বাইরে আলোকসজ্জা পরিহার করতে বলা হয়েছে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেছেন, গত বছর কুমিল্লায় একটি মণ্ডপে কোরআন শরীফ রাখা নিয়ে সহিংসতার বিষয়টি মাথায় রেখে সব ধরনের নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে।

র‌্যাব সূত্র জানায়, পূজা কমিটি ও মণ্ডপের দায়িত্বশীলদের সঙ্গে সমন্বয় করে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা করেছে র‌্যাবের ১৫টি ব্যাটালিয়ন ও ৬০টি ক্যাম্প। সাদা পোশাকে মাঠপর্যায়ে নজরদারির পাশাপাশি তৎপরতা রয়েছে সাইবার স্পেসেও। মণ্ডপকেন্দ্রিক নিরাপত্তায় থাকবে স্ট্রাইকিং ও রিজার্ভ ফোর্স।

এছাড়া যেকোনো জরুরি প্রয়োজনে জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল করতে পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

নয়া শতাব্দী/জেআই

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ