ঢাকা, রোববার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪
উত্তরায় গার্ডার দুর্ঘটনা

ক্রেনচালকসহ ৩ জনের দায় স্বীকার, ৪ জনের জামিন

প্রকাশনার সময়: ২৩ আগস্ট ২০২২, ০৮:৪০

রাজধানীর উত্তরায় প্রাইভেটকারের ওপর নির্মাণাধীন বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার পড়ে একই পরিবারের ৫ সদস্য নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ক্রেনচালক, হেলপারসহ তিনজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। একইদিনে চার আসামির জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (২২ আগস্ট) রিমান্ড শেষে আট আসামিকে আদালতে হাজির করা হলে তিনজন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

স্বীকারোক্তি দেয়া আসামিরা হলেন, ক্রেনচালক আল-আমিন, তার সহকারী (যিনি ক্রেন চালাচ্ছিলেন) রাকিব ও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সেফটি ইঞ্জিনিয়ার মো: জুলফিকার আলী শাহ।

আর জামিন পাওয়া আসামিরা হলেন, প্রকল্পের ভারি যন্ত্রপাতি সরবরাহের ওয়ার্ক অর্ডার পাওয়া প্রতিষ্ঠান ইফসকনের স্বত্বাধিকারী মো: ইফতেখার হোসেন ও হেড অব অপারেশন্স আজহারুল ইসলাম মিঠু, থার্ড পার্টি হিসেবে ক্রেন সরবরাহ করা বিল্ড ট্রেড ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেডের মার্কেটিং ম্যানেজার তোফাজ্জল হোসেন ওরফে তুষার ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা রুহুল আমিন মৃধা।

এদিন রিমান্ড শেষে ৮ আসামিকে আদালতে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উত্তরা পশ্চিম থানার পরিদর্শক মোহাম্মদ ইয়াসীন গাজী।

ঢাকার সিএমএম আদালতে উত্তরা পশ্চিম থানার সাধারণ নিবন্ধন শাখা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ আগস্ট বিকেলে উত্তরার জসীমউদ্দীনে প্যারাডাইস টাওয়ারের সামনে বিআরটি প্রকল্পের এক্সপ্রেসওয়ের গার্ডার চাপায় পাঁচজন নিহত হন। হতাহতরা ঢাকায় একটি বৌভাতের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে ফিরছিলেন।

গাড়িটিতে থাকা সাতজনের মধ্যে পাঁচজান মারা যান। নিহতরা হলেন- রুবেল (৫০), ঝরণা (২৮), ফাহিমা (৪০), জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (২)। ভয়াবহ এ দুর্ঘটনায় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান ওই গাড়িতে থাকা হৃদয় (২৬) ও রিয়া মনি (২১) নামে নবদম্পতি।

এ ঘটনায় ওই রাতেই নিহত ফাহিমা আক্তার ও ঝরণা আক্তারের ভাই মো: আফরান মণ্ডল বাবু বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করেন। মামলায় ক্রেনের চালক, প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও নিরাপত্তা নিশ্চিতে দায়িত্বপ্রাপ্তদের অভিযুক্ত করা হয়েছে।

নয়া শতাব্দী ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

মন্তব্য করুন

এ সম্পর্কিত আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

আমার এলাকার সংবাদ